চিকিৎসা ছাড়াই সুস্থ হয় বেশির ভাগ করোনা রোগী

View: 123

চিকিৎসা ছাড়াই সুস্থ হয় বেশির ভাগ করোনা রোগী

23 Mar, 2020    0


হঠাৎ করেই ভয়ানক হয়ে ওঠে না করোনা ভাইরাস। আক্রান্তের প্রথমদিন থেকে লক্ষণ প্রকাশ পেয়ে ছয় সাত দিন লাগে মারাত্মক রূপ নিতে। তবে শরীরে অন্যকোনো জটিলতা না থাকলে ছয় সাত দিন এমনিতেই সেরে যায় রোগটি।


এদিকে এ পর্যায়ে এসে করোনা মোকাবিলায় কেবল স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় পর্যায় থেকে নির্দেশনা আসা জরুরি বলে মত বিশেষজ্ঞদের। চারিদিকে আতঙ্ক করোনার। তাইতো জেনে নেয়া উচিত এর লক্ষণগুলো।

বিশেষজ্ঞদের মতে, কোভিড নাইনটিনে আক্রান্ত হলে প্রথম দিন থেকে তৃতীয় দিন উপসর্গ হালকা জ্বর, তাপমাত্রা ১০০ থেকে ১০২। চতুর্থ দিনে এসে বাড়বে জ্বরের মাত্রা, বাড়তে থাকবে গলাব্যথা। মাথাব্যথা, ক্ষুধা কমে যাওয়ার পাশাপাশি দেখা দেবে ডায়রিয়া। পঞ্চম দিনে শরীরে দেখা দিবে অবসাদ, শুকনো কাশি আর মাংশপেশিতে ব্যথা শুরু হবে। এর পরদিনে জ্বর থাকবে ১০০ ডিগ্রির মতো, পাশাপাশি শ্বাসকষ্ট, শুকনো কাশি, ডায়রিয়া বা বমি। সপ্তম দিনে এসব উপসর্গ আরও তীব্র হয়। অষ্টম ও নবম দিনে জ্বরের ও শ্বাসকষ্ট আর তীব্র হয়ে নিউমোনিয়ায় রূপ নেবে। তবে অধিকাংশের ক্ষেত্রে তা পাঁচ কিংবা ছয় দিনের মাথাই রোগী সুস্থ হয়ে ওঠে। শরীরে ডায়াবেটিস, হৃদরোগ কিংবা কিডনিজনিত সমস্যা থাকলেই কেবল মারাত্মক দিকে যায় রোগটি। মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক রিদওয়ানুর রহমান বলেন, বেশিরভাগ রোগী চিকিৎসা ছাড়াই ভালো হয়ে যায়। যাদের আইসিইউ লাগবে তাদেরকেই সাপোর্ট দিতে হয়। যাদের হাসপাতালে ভর্তি করনো হবে, তাদেরও তেমন একটা ওষুধ লাগে না।

এদিকে এমন পরিস্থিতিতে পরিকল্পনা আরও সুসংগঠিত করতে যেকোন নির্দেশনা সরকারের সর্বোচ্চ মহল থেকে আসলে শক্ত হাতে এ মহাদুর্যোগ মোকাবিলা সম্ভব হবে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলেন, অন্যান্য দেশ কঠোর অবস্থান থেকে নেতৃত্ব নিচ্ছে। আমাদের এখানে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রয়োজন হয়। আমাদের কন্ট্রোলের জায়গাটা এখন আরেও উচ্চস্তরে নিয়ে যাওয়া উচিত। এরই মধ্যে সংশ্লিস্ট মন্ত্রণালয়গুলোকে এক করে কাজ শুরু করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সমন্বিত কন্ট্রোল রুম।

Comments